Bengal News Desk

Staff Reporter

Dhanbad DRM: আমার বউকে জুতো খুলতে বলেছিস! হাসপাতাল কর্মীকে জামাকাপড় খুলিয়ে ‘শাস্তি দিলেন রেলের DRM’

ধানবাদ রেলওয়ের ডিআরএম কমল কিশোর সিনহা। তার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ। রেল হাসপাতালে ছেলেটিকে নগ্ন করে শাসালেন বলে অভিযোগ। বাসিন্দা বসন্ত উপাধ্যায়কে অমানবিক শাস্তি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর, ডিআরএমের স্ত্রী ডাক্তার দেখাতে গিয়েছিলেন। আর সেখানে ওয়ার্ড বয় মহিলাকে জুতো খুলে ডাক্তারের অফিসে ঢুকতে বলেন। এটা একটা অপরাধ। আর এর জন্য ওয়ার্ড বয়কে অমানবিক শাস্তি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

তার সহকারী তাকে ডিআরএম অফিসে ডেকে নিয়ে অপরাধ করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার পর স্টেশন বয়কে ভয়ে রেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

অসংখ্য মিডিয়া আউটলেট অনুসারে, প্যারামেডিক ইঙ্গিত দিয়েছেন যে তিনি হাসপাতালে ডিউটিতে ছিলেন। এমন সময় ডিআরএমের স্ত্রী ডাক্তার দেখাতে আসেন। এর মধ্যে তাকে জুতা খুলে ওয়ার্ডে যেতে বলেন। কিন্তু তিনি তা শোনেননি। সে মুচকি হেসে জুতা পরে ভিতরে চলে গেল।

Advertisement

ইতিমধ্যে, তিনি ঘটনার পর বাড়ি ফিরে আসেন এবং সম্ভবত ডিআরএম-এর কাছে এই বাসিন্দার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছিলেন। এরপর ওয়ার্ড বয়সহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ফোন করে ডিআরএম অফিস। তারপর ডিআরএম শেষ পর্যন্ত এই ছেলেটিকে বকাঝকা করে। তখন ডিআরএম সহকারী ছেলেটিকে পোশাক খুলতে বাধ্য করেন। এরপর তাকে অর্ধনগ্ন অবস্থায় বাড়িতে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

এদিকে এই ঘটনার পর ক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা। তারা ডিআরএম সচিবালয়ের প্রতি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এমনকি বিক্ষোভে যোগ দেওয়ার জন্য তারা তাদের চাকরি ছেড়ে দিয়েছে।

এদিকে ঘটনা জানতে পেরে হাসপাতালে ছুটে যান এডিআরএম। চিকিৎসা কর্মীদের প্রতিবাদের মুখেও পড়েন তিনি। তিনি শেষ পর্যন্ত হরতাল ডেকেছেন। তদন্তের আশ্বাসও দেন তিনি।

Advertisement

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বাবরাল মারান্ডি এক টুইট বার্তায় পুরো ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। রেলমন্ত্রীকেও ট্যাগ করেন তিনি।

ব্যান্ড ছেলে বসন্ত উপধাইয়ের স্ত্রী জানান, তার স্বামী নির্দোষ। সে কখনো কারো সাথে উচ্চস্বরে কথা বলে না। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। তবে রেলওয়ের কোনো কর্মকর্তা তাকে দেখতে আসেননি বলেও দাবি করেন তিনি। সাধারণভাবে, এই ঘটনায় দানবাদ রেল প্রশাসনে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে।

আরও পড়ুন

Latest articles

Leave a Comment

%d bloggers like this: